শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৭
বিশ্বের সবচেয়ে দামি কফি ‘লুয়াক’ প্রতি কাপ ৩৫০০ টাকা
Published : Wednesday, 15 November, 2017 at 7:25 PM

বিশ্বের সবচেয়ে দামি কফি ‘লুয়াক’ প্রতি কাপ ৩৫০০ টাকাস্বাস্থ্য ডেস্ক
শরীরকে চাঙা করার জন্য কফির জনপ্রিয়তা আকাশছোঁয়া। পানীয়টির এ জনপ্রিয়তা দিনকে দিন বাড়ছেই। বাড়ছে দামও। বিশ্বে এখন সবচেয়ে দামি কফির নাম ‘কপি লুয়াক’। এ প্রকারের কপি সবচেয়ে বেশি উৎপাদন হয় ভারত মহাসাগরীয় দ্বীপপুঞ্জের রাষ্ট্র ইন্দোনেশিয়ায়।
সেখানকার প্রতি কাপ ‘কপি লুয়াক’র দাম সর্বনিম্ন ৩৫ ডলার (২৭শ’ টাকা) থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ১০০ ডলার (৭ হাজার ৮শ’ টাকা) পর্যন্ত (গড়ে বাংলাদেশি টাকায় সাড়ে ৩ হাজার টাকা থেকে ৬ হাজার টাকা), যেখানে সাধারণ কফি প্রতি কাপ বিক্রি হয় (বিশ্ববাজারে) ২ ডলার থেকে ৫ ডলার পর্যন্ত।কিন্তু বিশ্বের সবচেয়ে দামি এ কফি যে পদ্ধতিতে বানানো হয়, তা অবাক করবে যেকোনো কফিপ্রেমীকেই। এমনকি এ কফি পান করবেন কি করবেন না সে নিয়ে ধন্দেও পড়ে যেতে হতে পারে অনেককে। একটি ওয়েবসাইটে পাওয়া সে কফি তৈরির প্রক্রিয়া জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে বাংলানিউজের পাঠকদের। বিশ্বের সবচেয়ে দামি কফি ‘কপি লুয়াক’ তৈরি হয় গন্ধগোকুলের বিষ্ঠা থেকে! এটা কীভাবে? চাষ করা কফির বীজগুলো খেতে দেওয়া হয় গন্ধগোকুলকে। তারা বেছে বেছে সবচেয়ে ভালো বীজগুলোকে গিলে নেয়। কিন্তু এ বীজ পুরোপুরি হজম করতে পারে না প্রাণীটি। কিছুটা হজম হয়, আর কিছুটা রয়ে যায় আস্ত। পরে গন্ধগোকুল বিষ্টা ছাড়লে তা থেকে আস্ত বীজগুলো সংগ্রহ করেন খামারিরা। আর সে বীজগুলো পরিষ্কার করেই তৈরি করা হয় সবচেয়ে দামি কফি।ওয়েবসাইটটির তথ্যমতে, কফির বীজগুলো গন্ধগোকুলের পেটে গিয়ে তাদের এনজাইমের (প্রাণীর দেহকোষে উৎপন্ন জৈব রাসায়নিক পদার্থ বিশেষ) সঙ্গে মিশে যায়। এতে কফির বীজে যোগ হয় ক্যারামেলের ফ্লেভার বা এক প্রকারের সুগন্ধ। আর সেটাই ‘কপি লুয়াক’র সুগন্ধ ও দাম বাড়িয়ে দেয় বহুগুণ। গন্ধগোকুল বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়াসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া এবং সাব-সাহারা এলাকায় দেখা যায়। এরা সাধারণত পোকামাকড় ও ছোট প্রাণী খেতে পছন্দ করে। খেয়ে থাকে মজাদার কফি বীজ, আম ও এ ধরনের ফলও।‘কপি লুয়াক’র উৎপাদক ইন্দোনেশিয়ায় এখন সেজন্য প্রচুর গন্ধগোকুল পালন করা হচ্ছে। আর সেই প্রাণীটির মাধ্যমে উৎপাদন করা হচ্ছে সবচেয়ে দামি কফি। গন্ধগোকুলের ইংরেজি নাম সিভেট বা সিভেট ক্যাট বলে ‘কপি লুয়াক’ ‘ক্যাট পুপ কফি’ বা ‘সিভেট ক্যাট কফি’ নামেও পরিচিত।বিশ্ববাজারে ৫০০ গ্রাম ‘কপি লুয়াক’র দাম ১০০ ডলার থেকে ৬০০ ডলার পর্যন্ত, যেখানে ৫০০ গ্রাম সাধারণ কফির দাম ৩ থেকে ১০ ডলার পর্যন্ত রাখা হয়। আর বিশ্বজুড়ে প্রতিবছর ‘কপি লুয়াক’ উৎপাদন হয় ২৫০ কেজি থেকে ৫০০ কেজি, যেখানে সাধারণ কফি প্রতিবছর উৎপাদন হয় ৯০০ মিলিয়ন টন।
উৎপাদকরা কথায়, সাধারণত বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় অভিজাত হোটেলগুলো চড়া দাম দিয়ে এ কফি কিনে নেয়। আর তারা এই কফি দেয় বিলাসী অতিথিদের।



সম্পাদক : জয়নাল হাজারী। ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯, ০১৭৫৬৯৩৮৩৩৮
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আইন উপদেষ্টা : এ্যাডভোকেট এম. সাইফুল আলম। আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : hazarikabd@gmail.com, Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি