মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮
৫ হাজার একরে বোরো আবাদের সম্ভাবনা
Published : Saturday, 13 January, 2018 at 8:38 PM

৫ হাজার একরে বোরো আবাদের সম্ভাবনাস্টাফ রিপোর্টার॥ এলজিইডির ক্ষুদ্রাকার পানি সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় উখিয়ায় চারটি রাবারড্যাম নির্মাণ করায় স্বস্তি মিলেছে কৃষকদের। এর ফলে কৃষিপণ্য উৎপাদনে দেখা দিয়েছে অপার সম্ভাবনা। তিনটি খালের ওপর নির্মিত রাবারড্যামে জমে থাকা পানি দিয়ে চাষাবাদ করে এরই মধ্যে আত্মনির্ভরশীল হয়েছেন এলাকার হাজারো প্রান্তিক, ক্ষুদ্র ও বর্গাচাষি। সর্বোপরি হরিণমারা খালের ওপর নির্মাণাধীন রাবারড্যামের উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন হলে চারটি রাবারড্যামের আওতায় অতিরিক্ত আরও পাঁচ হাজার একর অনাবাদি জমিতে বোরো চাষাবাদসহ শাকসবজি উৎপাদন সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্নিষ্টরা। নির্মাণাধীন হরিণমারা ক্ষুদ্রাকার পানি সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্প ঘুরে দেখা যায়, চার কোটি ৫০ লাখ টাকা ব্যয় বরাদ্দে রাবারড্যামের উন্নয়ন কাজ চলছে জোরেশোরে। ঠিকাদার আবুল বাশার রুদ্র জানান, চলতি মৌসুমে এ রাবারড্যামের আওতায় বোরো চাষাবাদসহ খালের আশপাশে দীর্ঘদিনের অনাবাদি সহস্ট্রাধিক একর জমিতে বোরোসহ বিভিন্ন শাকসবজি আবাদ করা সম্ভব হবে। হরিণমারা পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক নুরুল কবির জানান, এ রাবারড্যামের আওতায় হরিণমারা খালের ওপর নির্মিত ব্রিজটির উন্নয়নের ফলে জালিয়াপালং, তুতুরবিল, হরিণমারা, দুছড়ি, কাছিয়ারবিল, পিনজিরকুলসহ ১২টি গ্রামের ২০ হাজার মানুষের যাতায়াত নিশ্চিত হয়েছে।
এদিকে হলদিয়াপালং ইউনিয়নে দুই কোটি ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে পাগলিরছড়ার ওপর রাবারড্যাম নির্মাণের ফলে এলাকার হতদরিদ্র পরিবারের জন্য আয়ের পথ সুগম করা হয়েছে দাবি করে স্থানীয় চেয়ারম্যান খাইরুল আলম চৌধুরী জানান, রাবারড্যামটি নির্মাণ হওয়ার পর থেকে খালের উভয় পাশে দেড় হাজারের বেশি অনাবাদি জমি চাষাবাদের আওতায় এসেছে। এ নিয়ে কৃষকদের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা আর বেড়েছে।
রাজাপালং ইউনিয়নের পশ্চিম ডিগলিয়া খালের ওপর পাঁচ কোটি ৩৪ লাখ টাকা ব্যয় বরাদ্দে নির্মিত রাবারড্যামের আওতায় প্রায় দুই হাজার একর জমি বোরো চাষাবাদের আওতায় এসেছে। খালের পাড়ে বসবাসরত কৃষক নুরুল ইসলাম, শামসুল আলমসহ অনেকে জানান, রাবারড্যাম নির্মাণ হওয়ার পর থেকে তারা জমিতে বোরো চাষের পাশাপাশি বিভিন্ন শাকসবজি উৎপাদন করছেন। উৎপাদিত শাকসবজি পরিবারের চাহিদা পূরণের পর বাজারে বিক্রি করছেন।
তিন কোটি ৯১ লাখ টাকা ব্যয় বরাদ্দে থিমছড়ি পূর্বকূল রাবারড্যামে হাজারো গরিব-দুস্থ কৃষকের ভাগ্য পরিবর্তন হয়েছে দাবি করে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম জানান, থিমছড়ি রাবারড্যামের আওতায় আপাতত ৫০০ একর জমিতে বোরো চাষাবাদ হয়েছে। পরে এ রাবারড্যামের আওতায় জমির পরিধি আরও বাড়তে পারে। তবে বিভিন্ন স্থানের লোকজন মাটির বাঁধ দিয়ে অবৈধভাবে চাষাবাদ করার কারণে এ রাবারড্যামের ধারণক্ষমতা অনুপাতে পানি জমা হচ্ছে না, যে কারণে চাষাবাদ হচ্ছে অল্পসংখ্যক জমিতে। তিনি বলেন, চারটি রাবারড্যামের আওতায় প্রায় পাঁচ হাজার একর অনাবাদি জমিতে বোরো চাষাবাদসহ শাকসবজি উৎপাদনের মাধ্যমে এলাকার হতদরিদ্র কৃষকরা আত্মনির্ভরশীল হবেন। 


সম্পাদক : জয়নাল হাজারী। ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯, ০১৭৫৬৯৩৮৩৩৮
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আইন উপদেষ্টা : এ্যাডভোকেট এম. সাইফুল আলম। আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : [email protected], Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি