রবিবার, ২১ জুলাই, ২০১৯
বঙ্গবন্ধুর ছবির স্থান হলো ময়লা স্তুুপে
Published : Sunday, 23 June, 2019 at 6:28 PM

বঙ্গবন্ধুর ছবির স্থান হলো ময়লা স্তুুপেফেনী প্রতিনিধি ॥
ফেনী সোনাগাজী ৮ নং আমিরাবাদ ইউনিয়নের গর্বিত মায়ের গর্বিত সন্তান, যারা দেশকে স্বাধীন করার জন্য ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদ হয়েছিলেন তাদেরই স্মরণে কেন্দ্রীয় সৃতি সৌধ নির্মাণ করা হয় আমিরাবাদ ইউনিয়নের আহাম্মদপুর বাজারে সিএনজি স্টেশনে। যা সম্পুর্ণ অরক্ষিত জায়গায় সৃতি সৌধটি নির্মাণ করা হয়েছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ আমিরাবাদ ইউনিয়নের শহীদদের সৃতি সৌধ নির্মাণ করার মতো সংরক্ষিত জায়গা থাকলেও সৃতি সৌধ টি ২০১৫ সালে ডিসেম্বর মাসে চেয়ারম্যান জহিরুল আলম নির্মাণ করেন সিএনজি স্টেশনে। যেখানে সব সময় বাজারের ময়লা আবর্জনা পেলে রাখা হয় সৃতি সৌধ ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবির পাশে। সৃতি সৌধটি নির্মাণ করার পর চেয়ারম্যান জহিরুল আলম জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবিটাও বড় আকারে লাগিয়ে ছিলেন সৃতি সৌধের পাশে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বর্তমানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবিটা সৃতি সৌধের পাশে অরক্ষিত জায়গায় ময়লা আবর্জনার মধ্যে পেলে রাখা হয়েছে। নাম না প্রকাশ করা শর্তে এক সিএনজি চালক বলেন, ভাই আমাদের চেয়ারম্যান এই সৃতি সৌধ এর পাশ দিয়ে তার ব্যক্তিগত গাড়ী নিয়ে দৈনিক কয়েক বার ইউনিয়ন পরিষদে যাতায়াত করেন। তিনি যাতায়াত করার সময় সৃতি সৌধ ও বঙ্গবন্ধুর ছবির এমন দৃশ্য দেখলেও তা সংরক্ষণের জন্য কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। আমিরাবাদের স্থানীয় এক মুক্তিযোদ্ধা বলেন,চেয়ারম্যান জহিরুর আলমের অবহেলার কারণে সৃতি সৌধ টির চারপাশ সংরক্ষিত না হওয়ার কারণে সব সময় ময়লা আবর্জনার স্তুুপে পরিনত হচ্ছে এবং বঙ্গবন্ধুর ছবিটিও দিন দিন ময়লা আবর্জনার মধ্যে বিকল হওয়ার পথে। তিনি আরো অভিযোগ করে বলেন,সোনাগাজীর সর্বত্রই যত্র তত্রই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ব্যবহার করা হচ্ছে । সোনাগাজীর কয়েকটি ইউনিয়ন ও উপজেলার সর্বত্রই বিভিন্ন পোষ্টার, লিফলেট, ফেষ্টুন, ব্যানার, বিলবোর্ড, সাইনবোর্ডে ইচ্ছামত ছবি ব্যবহার করছেন দলীয় নেতা কর্মীরা যাহা জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্য অবমাননাকর বলে বিবেচিত সচেতন মহলের কাছে। রাজনৈতিক ব্যক্তিরাও মনে করেন জাতির জনক ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ছবি ব্যবহার করলে তা যথাযত মর্যাদায় ব্যবহার করতে হবে। তবে অবমাননা করার জন্য নয়। এ ব্যাপারে সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুফিজুল হক এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি ব্যবহার করলে তা যথাযথ মর্যাদার সাথে লাগিয়ে ব্যবহার করতে পারবে। তা না করে যত্র তত্র ছবি লাগানোটাই হবে সম্পুর্ন অসম্মান জনক কাজ। তিনি আরো বলেন,অনেকে নিজের স্বার্থের জন্য নিজেকে সবার কাছে পরিচিত করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বঙ্গবন্ধুর ছবি যত্রতত্র ব্যবহার করছেন। এবিষয়ে আমরা সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের আগামী বৈঠকে নেতা কর্মী সবার উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি ব্যবহার বা ছবি লাগানোর বিষয়ে কঠোর দিক নিদের্শনা দিয়ে দিবো। দিক নিদের্শনা দেওয়ার পরও যদি কেউ তা অমান্য করে যত্র তত্র ছবি ব্যবহার করে তাহলে তার বিরুদ্ধে দলীয় ও আইনগত ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে অবমাননাকর কোন ছবি দলের কেউ ব্যবহার করতে পারবে না বলে জানান তিনি।


সম্পাদক : জয়নাল হাজারী।  ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : [email protected], Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি