শনিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৯
সড়ক পথে সীমাহীন দুর্ভোগ
Published : Friday, 9 August, 2019 at 8:03 PM


সড়ক পথে সীমাহীন দুর্ভোগস্টাফ রিপোর্টার ॥
প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগা-ভাগি করতে ঢাকা ছেড়ে লাখ লাখ মানুষ গ্রামের বাড়িতে ছুটছেন। শুক্রবার ছুটির দিনে সড়ক পথে মানুষের চাপ বেশি এবং দেশের বিভিন্ন মহাসড়কে সকাল থেকেই দীর্ঘ যানজট। ফলে চরম দুর্ভোগে পড়েছে ঘরমুখো মানুষ। শুক্রবার (৯ আগস্ট) সকাল থেকেই ঘরে ফেরা মানুষের চাপ বাড়তে থাকে। সেই সাথে বাড়ছে যানজটও। বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম পাড়ে সিরাজগঞ্জ অংশে অতিরিক্ত যানবাহনের চাপের ফলে গাড়ি টানতে পারছেন না চালকরা। ফলে বঙ্গবন্ধু সেতুর টোল আদায় বন্ধ করে দিয়েছে সেতু কর্তৃপক্ষ। শুক্রবার বেলা ১১টা ৪৮ মিনিট থেকে টোল আদায় বন্ধ করে দেয়া হয়। ফলে সেতুর পূর্বপাড়ে টাঙ্গাইলের অন্তত ২০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়াও বাকি অংশে খুবই ধীরগতিতে যানবাহন চলছে।

অপরদিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে অস্বাভাবিকভাবে গাড়ির সংখ্যা বেড়ে গেছে। পাটুরিয়া ঘাট থেকে ২০ কিলোমিটার ছাড়িয়ে গেছে লাইন। এছাড়া মহাসড়কে ৪টি বাস বিকল হওয়ায় যানচলাল বিঘ্নিত হচ্ছে চরমভাবে। বিআইডব্লিউটিসির আরিচা কার্যালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক জিল্লুর রহমান বলেন, ঈদের যাত্রী বাড়ি ফিরতে শুরু করেছে। একারণে সবধরণের গাড়ির চাপ বেড়ে গেছে। তবে, ২০টি ফেরি দিয়ে প্রাণপন চেষ্টা করছেন পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে। ধৈর্য্য সহকারে সাময়িক সমস্যার মোকাবেলা করার জন্য যাত্রীসাধারণকে অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

ঈদে ঘরমুখো মানুষের চাপে দক্ষিণ বঙ্গের ২১ জেলার প্রবেশদ্বার শিমুলিয়া ঘাটে যানজট তৈরি হয়েছে; পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে চার শতাধিক গাড়ি। ঢাকা-সিলেট মহাসড়কেও দীর্ঘ যানজট। কয়েকমাইল লম্বা এই যানজটে কচ্ছপ গতিতে গাড়ি চলছে। যাত্রীড়া পড়েছেন চরম ভোগান্তিতে।
এদিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে মির্জাপুর থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত ৪০ কি.মি রাস্তায় ধীরে ধীরে চলছে গাড়ি । গত মধ্যরাত থেকে এ রাস্তায় প্রচণ্ড যানজটের সৃষ্টি হয়, যা আজও অব্যাহত রয়েছে। পুলিশ জানায়, গত রাতে উত্তরবঙ্গগামী গাড়ীর চাপ এবং ঢাকাগামী পশুর ট্রাকসহ নানা যানবাহন বেড়ে যাওয়ায় মধ্যরাত থেকে মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে যানজটের সৃষ্টি হয়। এ ছাড়া মহাসড়কের পুংলি, এলেঙ্গা ও রাবনা বাইপাস এলাকায় দুর্ঘটনায় গাড়ি বিকল হয়ে যানজট আরো তীব্র আকার ধারন করেছে। তবে যানজট নিরসনে জেলা পুলিশের ৭ শতাধিক সদস্য কাজ করে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শুধু মহাসড়কেই নয়, বাস ও লঞ্চ টার্মিনাল এবং রেলস্টেশনে যেতে বাসা থেকে রওনা হয়ে মিরপুর-১, মিরপুর-১২, পল্লবী, কালশী, টেকনিক্যাল, কল্যাণপুরসহ রাজধানীর বিভিন্ন প্রান্তে প্রচণ্ড যানজটে আটকা পড়ে যাত্রীরা। অনেকে গণপরিবহন না পেয়ে হেঁটেই গন্তব্যে ছুটতে থাকে।
মহাখালী, সায়েদাবাদ ও ফুলবাড়িয়া বাস টার্মিনালে যাত্রীদের ভিড় সকাল থেকেই। এসব টার্মিনালে পৌঁছতে যাত্রীদের রীতিমতো যুদ্ধ করতে হচ্ছে অনেককে। এবার ঈদের ছুটিতে সড়কপথে বাড়ি ফেরা মানুষের যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। গত ঈদুল ফিতরের আগে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দ্বিতীয় মেঘনা-গোমতি সেতু চালুর ফলে যানজটের বিড়ম্বনা থেকে মানুষ রেহাই পেয়েছে। দীর্ঘ যানজটে আটকে থাকার ঝুঁকি না থাকায় ওই অঞ্চলের মানুষদের এবারও ঈদ যাত্রায় সড়ক পথকেই বেছে নিতে দেখা গেছে। এ ছাড়া রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ মহাসড়কের অবস্থা ভালো হওয়ায় এবারের ঈদযাত্রায় দীর্ঘ যানজটের আশঙ্কা কম বলেও সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।


সম্পাদক : জয়নাল হাজারী।  ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : [email protected], Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি