মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল, ২০২০
পাঁচ দেশে করোনায় আক্রান্ত আড়াই লাখ
Published : Wednesday, 25 March, 2020 at 9:18 PM

স্টাফ রিপোর্টার:
মহামারি আকার ধারণ করা নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাব এড়াতে ব্যর্থ সারা বিশ্ব। অচেনা ভাইরাসটির কারণে সারা বিশ্বে অচলাবস্থা বিরাজ করছে। প্রাণঘাতী ভাইরাসটিতে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসাসেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রসহ ইউরোপের করোনা আক্রান্ত দেশগুলো। ইতোমধ্যে বিশ্বের ১৯০টির মতো দেশে ছড়িয়েছে করোনা। ভাইরাসটিতে আক্রান্তের সংখ্যা চার লাখ ছুঁই ছুই। এর মধ্যে পাঁচ দেশে চীন, ইতালি, যুক্তরাষ্ট্র, স্পেন ও জার্মানিতেই আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৫৫ হাজার ৪৩৫ জন। আর এই পাঁচ দেশসহ সাত দেশে মৃত্যু হয়েছে ১৫ হাজার ১১২ জনের। অন্য দেশ দুটি হলো ফ্রান্স ও ইরান।
গত বছরের শেষ দিন চীনের উহান শহরে প্রথম শনাক্ত হয় নভেল করোনাভাইরাস। উহানে ভয়াবহ আকার ধারণ করার পর সারাবিশ্বে তাণ্ডব চালাচ্ছে প্রাণসংহারি ভাইরাসটি। ইতোমধ্যে ১৯০টির মতো দেশে ছড়িয়েছেন অচেনা এই ভাইরাসটি। করোনায় আক্রান্ত হয়ে ইতোমধ্যে সারা বিশ্বে ১৬ হাজার ৫৫৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া গত আড়াই মাসে সারাবিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৮১ হাজার ৬৪৯ জন।
বর্তমানে রোগীর সংখ্যা ২ লাখ ৬২ হাজার ৬৬২ জন। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক ১২ হাজার ৬২ জন। মোট আক্রান্তদের মধ্যে ১ লাখ ২ হাজার ৪২৯ জন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন
যেসব দেশে সর্বাধিক প্রাণহানি
চীনে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হলেও সবচেয়ে বেশি প্রাণহানি হয়েছে ইউরোপের দেশ ইতালিতে। ইতালিতে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৮ জন চিকিৎসকসহ ৬ হাজার ৭৭ জন। দেশটির সর্বমোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬৩ হাজার ৯২৭ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ৭ হাজার ৪৩২জন। এখন পর্যন্ত ৫০ হাজার ৪১৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এদের মধ্যে ৩ হাজার ২০৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এরই মধ্যে বহির্বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধসহ পুরো দেশটি লকডাউন করা হয়েছে।
করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল ধরা হয় চীনের উহানকে। এখন পর্যন্ত সর্বাধিক আক্রান্ত হয়েছে দেশটির ওই প্রদেশেই। চীনে মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৮১ হাজার ১৭২ জন, যা এককভাবে দেশ হিসেবে সর্বাধিক। মৃত্যুর হিসেবে ইতালির পরেই আছে চীনের স্থান।
করোনায় দেশটির ৩ হাজার ২৭৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরে গেছেন ৭৩ হাজার ১৬৯ জন। বর্তমানে চিকিৎসা নিচ্ছেন ৪ হাজার ৭৩৫ জন। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক এক হাজার ৫৭৩ জন।
ইতালি ও চীনের পর মৃত্যুর হারে তৃতীয় স্থানে আছে স্পেনে। এছাড়া আক্রান্ত রোগীদের তালিকাতেও তিন নম্বরে আছে দেশটি। স্পেনে করোনায় মারা গেছেন ২ হাজার ৩১১ জন। মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৩৫ হজার ১৩৬ জন। সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৩৫৫ জন। বর্তমানে চিকিৎসা নিচ্ছেন ২৯ হাজার ৪৭০ জন। এদের মধ্যে ২ হাজার ৩৫৫ জনের অবস্থা আশঙ্কজনক। বহির্বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধসহ পুরো দেশটি লকডাউন করা হয়েছে।
স্পেনের পর করোনায় সবচেয়ে বেশি প্রাণহানি হয়েছে ইরানে। দেশটিতে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৮১২ জন। মোট আক্রান্ত রোগীর সংখা ২৩ হাজার ৪৯ জন। তাদের মধ্যে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন ৮ হাজার ৩৭৬। বর্তমানে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১২ হাজার ৮৬১ জন। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কেউ নেই।
তালিকায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় পাঁচ নম্বর আছে ফ্রান্স। করোনায় দেশটির ৮৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১৯ হাজার ৮৫৫ জন। করোনা আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ২০০ জন। এখনও চিকিৎসাধীন আছেন ১৬ হাজার ৭৯৬ জন। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক ২হাজার ৮২ জন। ইতিমধ্যে লকডাউন করা হয়েছে দেশটি। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে স্কুল, কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।
করোনায় মৃতুহারের দিক থেকে ছয় ও সাত নম্বরে রয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী দেশ যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য। যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪৬ হাজার ১৪৫ জন। এদের মধ্যে মারা গেছেন ৫৮২ জন। সুস্থ হয়েছেন ২৯৫ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন ৪৫ হাজার ২৬৮ জন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ১ হাজার ৪০ জন।
আর যুক্তরাজ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৬৫০ জন। মারা গেছেন ৩৩৫ জন। চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন ১৩৫ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন ৬ হাজার ১৮০ জন। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক ২০জন। প্রথমে কয়েকটি রাজ্য লকডাউন করলেও এরই মধ্য এই দেশ দুটি পুরোপুরি লকডাউন করা হয়েছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।
এছাড়া নেদারল্যান্ডস, জার্মানি ও দক্ষিণ কোরিয়ায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে যথাক্রমে ২১৩, ১২৩ ও ১২০ জনের। এই দেশগুলোর মোট এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৪ হাজার ৭৪৯ জন, ২৯ হাজার ৫৬ জন ও ৯ হাজার ৩৭ জন।
সর্বাধিক আক্রান্ত দেশসমূহ
করোনায় সর্বাধিক আক্রান্ত দেশসমূহ ক্রমান্বয়ে- ১. চীন (৮১,১৭১)। ২. ইতালি (৬৩,৯২৭)। ৩. যুক্তরাষ্ট্র (৪৬,১৪৫)। ৪. স্পেন (৩৫,১৩৬)। ৫. জার্মানি (২৯,০৫৬)। ৬. ইরান (২৩,০৪৯)। ৭. ফ্রান্স (১৯,৮৫৬)। ৮. দক্ষিণ কোরিয়া (৯,০৩৭। ৯. সুইজারল্যান্ড (৮,৭৯৫) ও ১০. যুক্তরাজ্য (৬,৬৫০) জন।
করোনা আক্রান্ত হয়ে সারা পৃথিবীতে যারা চিকিৎসাধীন আছেন তাদের মধ্যে ১২ হাজার ৬২ জনের অবস্থা। মোট আক্রান্তদের মধ্যে ১ লাখ ২ হাজার ৪২৯ জন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন। এই মুহূর্তে সারাবিশ্বে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২ লাখ ৬২ হাজার ৬৬২ জন।




সম্পাদক : জয়নাল হাজারী।  ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : [email protected], Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি