শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২০
কালীগঙ্গা নদীর ভাঙনে হুমকির মুখে শহরের শত শত বাড়িঘর
Published : Tuesday, 29 September, 2020 at 7:02 PM

জেলা প্রতিনিধি ॥
মানিকগঞ্জে কালীগঙ্গা নদীর ভাঙনে হুমকির মুখে পড়েছে শহরের শত শত বাড়িঘর। জরুরী-ভিত্তিতে ব্যবস্থা না নিলে ভেঙে যাবে বাঁধটি।  ২০১০ সালে মানিকগঞ্জ পৌরসভার বোয়াললিয়া ও বড় সরুন্ডি এলাকায় কালীগঙ্গা নদীর ভাঙনরোধে ব্লক ফেলে শহর রক্ষা বাঁধটি তৈরি করে পানি উন্নয়ন বোর্ড। নদীর তীব্র স্রোতে ব্লকের নীচের মাটি সড়ে ব্লক নদীতে চলে যাচ্ছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, গত তিন বছর ধরে ভাঙন শুরু হলেও পানি উন্নয়ন বোর্ড ভাঙনরোধে এখন কোনও উদ্যোগ নেয়নি।  (মঙ্গলবার) দুপুরে বড় সরুন্ডি বোয়ালিয়া এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, বাঁধের চারটি অংশে ভাঙন দেখা দিয়েছে। এরমধ্যে একটি বোয়ালিয়া এলাকায় ৫০ মিটার বাঁধ সম্পূর্ণ ভেঙে নদীতে চলে গেছে। একটি বাড়ির কিছু অংশ ভেঙে গেছে।    আনোয়ার হোসেন আনু বলেন, ‘গত তিন বছর ধরে বাঁধটির ভাঙন চলছে। গত কয়েকমাসে ভাঙনটি বড় আকার ধারণ করছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডকে জানানো হয়েছে। কিন্তু কর্তৃপক্ষ এখনও কোনও উদ্যোগ নেয়নি। কিছুদিন আগে স্থানীয়রা বাঁশ ও বেড়া দিয়ে ভাঙনরোধের চেষ্টা করেছে। কিন্তু ভাঙন ঠেকানো যায়নি। জরুরি ভিত্তিতে ব্যবস্থা না নিলে কয়েকশ বাড়িঘর ভেঙে যাবে।’
মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার ভাইস-চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ তোতা বলেন, ‘আমরা নিজেরা টাকা দিয়ে ভাঙনরোধের চেষ্টা করেছি। কিন্তু স্রোত বেশি থাকায় ভাঙন ঠেকানো যাচ্ছে না।’ মানিকগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাইন উদ্দিন বলেন, ২০১০ সালে বাঁধটি তৈরি হয়। কালীগঙ্গা নদীর তীব্র স্রোতে বাঁধটির চারটি অংশে ভাঙন দেখা দিয়েছে। আগামী দুই একদিনের মধ্যে ভাঙনরোধে জিও ব্যাগ ফেলা হবে। প্রাথমিকভাবে পাঁচ হাজার ব্যাগ ফেলা হবে।


সম্পাদক : জয়নাল হাজারী।  ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : [email protected], Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি