বৃহস্পতিবার, ২৬ মে, 2০২2
ফেনীর ফুলগাজীতে তিন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী ও তাঁদের মাকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ
Published : Monday, 25 April, 2022 at 8:40 PM

ফেনী প্রতিনিধি
ফেনীর ফুলগাজী উপজেলায় তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে ঝগড়ায় দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী তিন ব্যক্তি ও তাঁদের মাকে হকিস্টিক দিয়ে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে শাকিল আহমেদ (২০) নামের এক তরুণের বিরুদ্ধে। আহত ব্যক্তিরা হলেন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী নাজমা আকতার (৩০), আবদুল মোতালেব (২৬), আবদুল মুনাফ (২৪) ও তাঁদের বৃদ্ধ মা মায়া বেগম (৬০)।
রোববার (২৪ এপ্রিল)  সকালে উপজেলার ফুলগাজী সদর ইউনিয়নের কিসমত বাশুড়া গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ কল করলে ফুলগাজী থানার পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এরপর স্থানীয় ব্যক্তিরা আহত চারজনকে উদ্ধার করে ফুলগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।
অভিযুক্ত শাকিল আহমেদ নিজেকে ফুলগাজী সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতা বলে দাবি করেন। তিনি সদর ইউনিয়নের কিসমত বাশুড়া গ্রামের শামছুল হুদার ছেলে।
এ ঘটনায় রোববার মারধরের শিকার তিন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীর বড় ভাইয়ের মেয়ে বাদী হয়ে ফুলগাজী থানায় শাকিল আহমেদ ও অজ্ঞাতনামা পাঁচ-ছয়জনকে আসামি করে লিখিত অভিযোগ দেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বাদীর বাবা আবদুল হাই ও একই বাড়ির ফটিক মিয়ার সঙ্গে বাড়ির সীমানা নিয়ে ঝগড়ার একপর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ সময় ফটিক মিয়া তাঁর মামা শামছুল হুদাকে খবর দেন। পরে শামছুল হুদা তাঁর ছেলে শাকিল আহমেদসহ পাঁচ-ছয়জনকে নিয়ে এসে ওই চারজনকে হকিস্টিক দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে আহত করেন।
জানতে চাইলে ওই ইউনিয়নের ছাত্রলীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম বলেন, শাকিল আহমেদের ইউনিয়ন বা ওয়ার্ড কমিটিতে কোনো পদ নেই। কিন্তু মাঝেমধ্যে মিটিং-মিছিলে আসেন।
আহত চারজন রোববার দুপুরে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শোয়েব ইমতিয়াজ। তিনি বলেন, সন্ধ্যায় কিছুটা সুস্থ বোধ করায় তাঁদের ওষুধপত্র দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।
ফুলগাজী সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. সেলিম বলেন, ভুক্তভোগী পরিবারটি মারধরের বিষয়টি তাঁকে মৌখিকভাবে জানিয়েছে।
জানতে চাইলে অভিযুক্ত শামছুল হুদা বলেন, ‘দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীরাও আমাদের মারধর করেছেন। আমরাও মারধর করেছি।’
এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফুলগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ মঈন উদ্দীন। তিনি বলেন, তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
আরও খবর


সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
প্রতিষ্ঠাতা বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল হাজারী।   ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: গোলাম কিবরীয়া হাজারী বিটু্।   প্রকাশক: মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী।
সহ সম্পাদক- রুবেল হাসান: ০১৮৩২৯৯২৪১২।  বার্তা সম্পাদক : জসীম উদ্দিন : ০১৭২৪১২৭৫১৬।  সার্কুলেশন ম্যানেজার : আরিফ হোসেন জয়, মোবাইল ঃ ০১৮৪০০৯৮৫২১।  রিপোর্টার: ইফাত হোসেন চৌধুরী: ০১৬৭৭১৫০২৮৭।  রিপোর্টার: নাসির উদ্দিন হাজারী পিটু: ০১৯৭৮৭৬৯৭৪৭।  মফস্বল সম্পাদক: রাসেল: মোবা:০১৭১১০৩২২৪৭   প্রকাশক কর্তৃক ফ্ল্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।  বার্তা, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন বিভাগ: ০২-৪১০২০০৬৪।  ই-মেইল : [email protected], web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি