মঙ্গলবার, ১৮ জুন, 2০২4
সোনাগাজীতে ৪ সন্তান রেখে পরকীয়া প্রেমিকের সাথে উধাও হয়েছে প্রবাসীর স্ত্রী
Published : Tuesday, 25 July, 2023 at 8:48 PM

ফেনী প্রতিনিধি ॥
অভিযোগ উঠেছে উপজেলার চরছান্দিয়া ইউনিয়নের আট নম্বর ওয়ার্ডর রোকশানা আক্তার একই এলাকার ট্রাক চালক শান্তর হাত ধরে  নগদ অর্থ ও স্বর্ণলংকার নিয়ে পালিয়ে গেছে।
এঘটনায় রোকশানার শাশুড়ী বিবি ফাতেমা বাদী হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় অভিযোগ দয়ের করেন। এ ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়।

 জানা গেছে,রোকশানার স্বামী নুরুল হক মিলন সৌদিতে কর্মরত থাকার সুবাধে দেশের বিভিন্ন পারিবারিক কাজের জন্য রোকশানার একাউন্টে টাকা জমা রাখে। সর্বশেষ একাউন্টে ৩লাখের বেশী টাকা ছিলো। এছাড়াও কানের দুল, চেইন সহ কয়েক ভরি স্বর্ণ নিয়ে গত ৫জুলাই শান্তর সাথে পালিয়ে যায়। শান্তও বিবাহিত। তার একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে।

শান্তর মা কহিনুরকে রোকশানার শাশুড়ী বিবি ফাতেমা একাধিকবার তাদের সম্পর্কের (পরকীয়া) বিষয়ে অবগত করলেও তারা তা আমলে না নিয়ে উল্টো বিবি ফাতেমাকে অপমান করে। অন্যদিকে রোকশানার পরিবারকে জানানো হলে রোকশানার ছোট ভাই সোহেল বাড়ীতে এসে তাকে সম্পর্ক না করতে সতর্ক করে যায়।

ঘটনার দিন বাড়ীর সবাই কাজকর্মে বাহিরে ছিলেন। ছেলে-মেয়েরা মাদ্রাসায় পড়তে গিয়েছিলো। এ সুযোগে রোকশানা নগদ টাকা ও স্বর্ণলংকার এবং কাপড়চোপড় সহ নিয়ে চলে যায়। প্রথমে মাদ্রাসা থেকে রোকশানার মেয়ে বাড়ীতে আসার পর তাকে দেখতে না পেয়ে। এবং জিনিসপত্র এলোমেলো দেখে তার নানুর বাড়ীতে গিয়ে খোঁজ করেও না পেয়ে মোবাইল নাম্বার কল দিলে বন্ধ পাওয়া যায়৷ পরে শান্তর পরিবারকে জানালে তারা বলেন তাদের ছেলে কোথায় গিয়েছে তারা জানেন না। শান্তরও মোবাইল নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।

পালিয়ে যাওয়া রোকসানার ১৬ বছর বয়সী মেয়ে বলেন, আমি সহ আমার আরো তিন ভাই রয়েছে। আমি কিছুদিন পূর্বে দেখতাম আমার আম্মু মোবাইলে কথা বলছে।এসএমএস করছে। কিন্ত আমাদেরকে দেখতে দিতো না। উনি আমাদেরকে এভাবে রেখে চলে গিয়েছে। তাই উনাকে আমরাও আর চাইনা।

ট্রাক চালক শান্তর মাতা কহিনুর আক্তার বলেন, আমি আগে থেকেই রোকশানাকে আদর করতাম আমার প্রতিবেশী হিসেবে। আমার ছেলে একটি বিয়ে করেছিলো আমাদেরকে না জানিয়ে।  আমরা তা মেনে নিয়েছি। তার একটা ছোট্ট মেয়েও আছে। মানুষের মুখে শুনতেছি সে রোকশানাকে নিয়ে পালিয়ে গিয়েছে। যদি এমন করে থাকে তবে তাকে আর আমার বাড়ীতে জায়গা দেবো না।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ইস্কান্দার রকি বলেন, বিষয়টি আমাকে তাদের পরিবারের থেকে অবগত করে। আমি তাদেরকে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলি।

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খালেদ হোসেন অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেন।
আরও খবর


সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
প্রতিষ্ঠাতা বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল হাজারী।   ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: গোলাম কিবরীয়া হাজারী বিটু্।   প্রকাশক: মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী।
সহ সম্পাদক- রুবেল হাসান: ০১৮৩২৯৯২৪১২।  বার্তা সম্পাদক : জসীম উদ্দিন : ০১৭২৪১২৭৫১৬।  সার্কুলেশন ম্যানেজার : আরিফ হোসেন জয়, মোবাইল ঃ ০১৮৪০০৯৮৫২১।  রিপোর্টার: ইফাত হোসেন চৌধুরী: ০১৬৭৭১৫০২৮৭।  রিপোর্টার: নাসির উদ্দিন হাজারী পিটু: ০১৯৭৮৭৬৯৭৪৭।  মফস্বল সম্পাদক: রাসেল: মোবা:০১৭১১০৩২২৪৭   প্রকাশক কর্তৃক ফ্ল্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।  বার্তা, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন বিভাগ: ০২-৪১০২০০৬৪।  ই-মেইল : [email protected], web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি