রবিবার, ২৬ মে, 2০২4
ধনবাড়িতে আউশের বাম্পার ফলন, বছরে চার ফসলের সম্ভাবনা
Published : Sunday, 20 August, 2023 at 4:53 PM

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ॥
 টাঙ্গাইলের ধনবাড়িতে  ব্রি-৯৮ জাতের নতুন ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। এ ধান স্বল্পকালিন সময়ে ফলন আসে। নতুন এ ধান  চাষে কৃষকের আগ্রহ দেখা দিয়েছে। স্বল্প জীবন কালের ফলে এক জমিতে ,এক বছরে চারটি ফসল চাষের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। কৃষতরা ফলন পাচ্ছে বিঘা প্রতি ৩০ থেকে ৪০ মন পর্যন্ত। স্থানীয় কৃষক ও কৃষি বিভাগ মনে করছে এ ধান চাষ জনপ্রিয় করতে পারলে আউশ আবার বড় ফসলে পরিনত হবে। গতকাল এ ধানের খেত পরিদর্শনে গিযে ছিলেন কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক এমপি ।
ধানের খেত পরিদর্শনে গিয়ে কৃষি মন্ত্রী  বলেছেন, দিন দিন কৃষি জমি কমে যাচ্ছে, বিপরীতে জনসংখ্যা বাড়ছে। পৃথিবীর সবচেয়ে জনবহুল এ দেশের ১৭ কোটি মানুষের খাদ্যের যোগান ঠিক রাখতে হলে একই জমি থেকে বছরে বার বার ফসল ফলাতে হবে, বেশি করে ফসল ফলাতে হবে। সাধারণত ১৪০-১৬০ দিনের মধ্যে ধান হয়, সেই ধান যদি ৯০-১০০ দিনের মধ্যে হয়, তাহলে সেটি বিরাট সম্ভাবনাময়। ব্রি ৯৮ আউশ ধান এই সম্ভাবনা নিয়ে এসেছে, ৯০-১০০ দিনে হচ্ছে; ফলনও বিঘাতে ২৫-৩০ মন। এ জাতটি সারা দেশে ছড়িয়ে দিতে পারলে খাদ্য নিরাপত্তায় বিরাট ভূমিকা রাখবে। গত শনিবার দুপুরে টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে মুশুদ্দি গ্রামে ব্রি-৯৮ জাতের আউশ ধানের খেত পরিদর্শনকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, উন্নত জাতের অভাব এবং খরা, বন্যা ও  অতিবৃষ্টির ঝুঁকির কারণে দেশে এখন আউশ ধান অনেক কমে গেছে। বেড়েছে বোরো ও আমনের চাষ। ইতোমধ্যে আমাদের বিজ্ঞানীরা স্বল্পজীবনকালীন উন্নত জাতের আউশ ধান উদ্ভাবন করেছেন। ব্রি৯৮ মাঠে খুবই সম্ভাবনা দেখাচ্ছে। এ জাতটি মাঠ পর্যায়ে জনপ্রিয় করতে পারলে দেশে আউশ আবার বড় ফসলে পরিণত হবে। একই সঙ্গে, এটি লাভজনক ফসল হিসাবে কৃষকের হাসিকে আরো চওড়া করবে।
একই জমিতে বছরে ৪টি ফসল ঘরে তোলার পরিকল্পনার কথা জানান  মুশুদ্দি গ্রামের কৃষক মিজানুর রহমান। তিনি জানান ব্রি ৯৮ জাতের এই আউশ ধানটি ২০ দিনের চারাসহ মোট ৯৮-১০০ দিনের মধ্যে কর্তন করেছেন। এর আগে তিনি এই জমিতে বোরো মৌসুমে ব্রি ৯৮ চাষ করেছিলেন। এখন তিনি আমনে ব্রি-৭৫ লাগাবেন এবং আমন কেটে স্বল্প জীবনকালীন সরিষার আবাদ করবেন।
সাংবাদিক আনছার আলী জানান, এ ধান চাষে আউশ আমন বোরো ও সরিষা চাষ করা যাচ্ছে। ফলে এক জমিতে এক বছরে চারটি ফসল চাষের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। জমি অলস পড়ে থাকবে না। এ খাদ্য নিরাপত্তায় এ নতুন জাতের ধান গুরুক্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার কথা ঊল্লেখ করে বলেন, ধান গবেষনার প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. আমেনা খাতুনের মাধ্যমে তারা বীজ পেয়েছেন,স্থানীয় কৃষি বিভাগের মাধ্যমে তারা এ নতুন জাতের ধান চাষ করে সফলতা পাচ্ছেন।
ধনবাড়ি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান বলেন. এ বছর ধনবাড়িতে  ১শ’ ৫০ হেক্টর জমিতে আঊশ ধানের চাষ হয়েছে। এর মধ্যে ৩০ বিঘা  ব্রি-৯৮ জাতের ধান চাষ হযেছে। আঊশের গড় ফলন সাড়ে ৪ মে. টন। ব্রি ৯৮ ধানের  গড় ফলন সাড়ে ৫ মে. টন। তবে মুশুদ্দিতে কৃষকরা সাড়ে ৬ থেকে ৭ মে. টন পর্যন্ত ফলন পাচ্ছে। ব্রি ৯৮ জাতের ধানটি ধনবাড়িতে এ বছরই প্রথম হচ্ছে বলে তিনি জানান।

আরও খবর


সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
প্রতিষ্ঠাতা বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল হাজারী।   ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: গোলাম কিবরীয়া হাজারী বিটু্।   প্রকাশক: মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী।
সহ সম্পাদক- রুবেল হাসান: ০১৮৩২৯৯২৪১২।  বার্তা সম্পাদক : জসীম উদ্দিন : ০১৭২৪১২৭৫১৬।  সার্কুলেশন ম্যানেজার : আরিফ হোসেন জয়, মোবাইল ঃ ০১৮৪০০৯৮৫২১।  রিপোর্টার: ইফাত হোসেন চৌধুরী: ০১৬৭৭১৫০২৮৭।  রিপোর্টার: নাসির উদ্দিন হাজারী পিটু: ০১৯৭৮৭৬৯৭৪৭।  মফস্বল সম্পাদক: রাসেল: মোবা:০১৭১১০৩২২৪৭   প্রকাশক কর্তৃক ফ্ল্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।  বার্তা, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন বিভাগ: ০২-৪১০২০০৬৪।  ই-মেইল : [email protected], web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি